অক্টোবর ২১, ২০২১

লক্ষ্মীপুর নিউজ

দিন বদলের প্রত্যয়ে

গণতান্ত্রিক অসাম্প্রদায়িক ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত লক্ষ্মীপুর চাই : এম আলাউদ্দিন

নিউজ ডেস্ক:
লক্ষ্মীপুর জেলার উন্নয়ন আর্থ-সামাজিক অবস্থা কেমন দেখতে চান জানতে চাইলে প্রবীন রাজনৈতিক নেতা, দক্ষ সংগঠক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা এম আলাউদ্দিন বলেন, জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব কন্যা ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকার উন্নয়নের রোল মডেল বাংলাদেশের সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন গণতান্ত্রিক অসাম্প্রদায়িক ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত লক্ষ্মীপুর জেলা স্থাপনে আমি দৃড় প্রত্যাশী। লক্ষ্মীপুর জেলার আইন শৃঙ্খলা স্থিতিশীল রেখে জেলাবাসীর জানমালের নিরাপত্তা বিধানের সাথে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা অত্যাবশ্যক। সন্ত্রাস, মাদক বিক্রেতা ও মাদক সেবীদের নির্মূল করা উচিৎ।
লক্ষ্মীপুর জেলায় রেল যোগাযোগ নেই। ফেনী-চৌমুহনী লক্ষ্মীপুর-চাঁদপুর রেল লাইন সংযোগ স্থাপন করে লক্ষ্মীপুর-ঢাকা, লক্ষ্মীপুর-বন্দরনগরী চট্টগ্রামের পণ্য সামগ্রী আমদানী-রপ্তানী করা অত্যাবশ্যক।
লক্ষ্মীপুর মেঘনা নদীর রুপালী ইলিশ ও জেলার অন্যান্য পণ্য সামগ্রী পরিবহন করা আবশ্যক। প্রস্তাবিত রেল লাইন স্থাপন হলে ৪০ লাখ লোক অধ্যুষিত ফেনী নোয়াখালী লক্ষ্মীপুর ও চাঁদপুরের জনগণের আর্থসামাজিক ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন সাধিত হবে। সরকার সকল জেলা ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট আধুনিক হাসপাতাল ও মেডিক্যাল কলেজ স্থাপন করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। লক্ষ্মীপুরে আধুনিক হাসপাতাল ও মেডিক্যাল কলেজ স্থাপন করে লক্ষ্মীপুর জেলার গরীব ও হত দরিদ্র জন সাধারনের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত হবে।
রায়পুর-লক্ষ্মীপুর-চন্দ্রগঞ্জ, রামগঞ্জ-সোনাইমুড়ি, কমলনগর-রামগতি, চন্দ্রগঞ্জ-চাটখিল আঞ্চলিক মহাসড়কগুলো চার লেন বিশিষ্ট মহা সড়কে উন্নীত করে সড়ক দূর্ঘটনা হৃাস এবং জনগণের সড়ক পথে যোগাযোগ ব্যবস্তা উন্নয়ন করা একান্ত আবশ্যক। গ্রামীণ রাস্তা-ঘাট সংস্কার ও নির্মাণ করে প্রায় ১৮ লাখ লোক অধ্যুশিত লক্ষ্মীপুর যোগাযোগ ক্ষেত্রে যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিৎ। পশ্চাৎপদ লক্ষ্মীপুর জেলায় কল-কারখানা স্থাপন করে শিক্ষিত-অর্ধ শিক্ষিত দক্ষ-অদক্ষ বেকারদের কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে একটি অর্থনৈতিক জোন স্থাপন করে অভিষপ্ত বেকার সমস্যা সমাধানের ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিৎ বলে মনে করি। লক্ষ্মীপুর মজু চৌধুরীর হাটে নৌবন্দর নির্মাণ করে নৌবন্দরের কাজ দ্রুত সম্পন্ন করে দক্ষিন বঙ্গের ২১ টি জেলার সাথে লক্ষ্মীপুরের ব্যবসা বাণিজ্য সম্প্রসারণ সময়ের দাবী।
লক্ষ্মীপুর জেলায় চিত্তবিনোদনের নিমিত্তে কোন আধুনিক পার্ক নেই। প্রাকৃতিক লীলী ভূমি মজু চৌধুরীর হাট সংলগ্ন এলাকায় একটি পার্ক ও পর্যটন কেন্দ্র স্থাপন করলে জেলাবাসী বিনোদনের সুবিধা পাবে। এ জেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আধুনিকায়ন ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় মানোন্নয়ন উপযোগী করে তুলতে হবে। লক্ষ্মীপুরের মেধাবী শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষার জন্য একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^ বিদ্যালয় স্থাপন করা অত্যন্ত প্রয়োজন। মেঘনা নদীর করাল গ্রাস থেকে কমলনগর ও রামগতিকে রক্ষা করা। ভাঙ্গন কবলিত গৃহহীন মানুষদের পূণঃর্বাসন করা মানবিক প্রয়োজন। জেলার অর্থকরী ফসল সয়াবিন, নারিকেল এবং সুপারি সংরক্ষনের জন্য সরকারি বেসরকারি উদ্যোগে শিল্প কারখানা গড়ে তুলতে হবে। লক্ষ্মীপুরের সাংবাদিকদের স্থায়ী ঠিকানা লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবকে আধুনিক অডিটোরিয়ামসহ একটি কমপ্লেক্স নির্মানের প্রয়োজন। লক্ষ্মীপুরের সমগ্র জেলায় এখনো বিদ্যুৎ গ্যাস পৌছেনি। আধুনিক সভ্যতার সংস্পর্শে আসার জন্য বিদ্যুৎ ও গ্যাস প্রয়োজন। নব গঠিত চন্দ্রগঞ্জ থানাকে উপজেলা মর্যাদা দেয়া আবশ্যক। সৎ ও সাদামনের মানুষ হিসেবে পরিচিত এ গুনিজনের সাক্ষাতকার নিয়েছেন- কামাল উদ্দিন।

Please follow and like us:
error20
Tweet 20
fb-share-icon20