লক্ষ্মীপুরে  পৈত্রিক সম্পত্তি বাঁচাতে গিয়ে স্বামী-স্ত্রী হাসপাতলে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ- লক্ষ্মীপুর পৌর ৩ নং ওয়ার্ড আব্দুলখলিফা বাড়িতে গত মঙ্গলবার দুপুর ১:৩০মিনিটের সময় পৈত্রিক সম্পত্তিতে ঘর নির্মানে বাধা দেওয়াকে কেন্দ্ন করে শুরু হয় হামলা এতে আহত দুই।

জানা যায়, বাবুল, দুলাল ও কামাল আপন তিন ভাই। তিন ভাইয়ের নামের পৈত্রিক সম্পত্তি ছোট ভাই কামালকে না বলে বিক্রি করে ফেলে বাবুল ও দুলাল। সম্পত্তি বিক্রি জানাজানি হলে কামালকে বাবুল বলেছিল তাকে অন্য সম্পত্তি থেকে তার সম্পত্তি বুঝিয়ে দেয়া হবে। দিচ্ছে দিবে বলে কামালকে আজও সম্পত্তি বুঝিয়ে না দেওয়ায় সে তার পৈত্রিক সম্পত্তিতে ফিরে পেতে চেয়েছিল।তাতেই  ঘটে জামিলা হাতাহাতি মারামারি।

বাবলু ও দুলাল সম্পত্তি বিক্রি করেছিল মিজান নামের এক ব্যক্তির কাছে।

কামাল বলেন, গত ৯ ফেব্রুয়ারি আমার স্ত্রী আমার পৈত্রিক সম্পত্তির উপর মিজান নামের এক ব্যক্তি দালান ঘর নির্মাণের কথা শুনে ঘটনাস্থলে গিয়েছিল। মিজানকে ঘর তুলতে বারণ করায় আমার স্ত্রীকে মিজান, ছলেমান, মিজানের বড় মেয়ে মিম সহ আরও কয়েকজন আমার স্ত্রী লাভলী আক্তার কে হাতুড়ি ও লোহার রড দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর করে।

আমার ছেলে রনি আমাকে খবর দিলে আমি ও রনি ঘটনাস্থলে গেলে তারা আমাদেরকে ও মারধর করতে আরম্ভ করে। আমাদের সোর চিৎকার শুনে আশপাশের লোকেরা এসে আমাদেরকে উদ্ধার করে।এলাকাবাসীর সহযোগিতায় আমি আমার স্ত্রী লাভলীকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করি।

কামাল দেশের সচেতন মহল ও প্রশাসন মহলের কাছে তার পৈত্রিক সম্পত্তি ফিরে পেতে ও তার স্ত্রীকে অমানবিক নির্যাতনের বিচার চান।

অন্যদিকে মিজান বলেন, আমি সম্পত্তি ক্রয় করেছি বাবুল ও দুলাল এর কাছ থেকে। এই সম্পত্তিতে কামালের কোনো জমি নেই। কামাল জমি পাওনা থাকলে নিবে তার ভাইদের কাছ থেকে। আমার কাছ কেন সেই জমির জন্য আসে।

মিজান আরো বলেন কামালের স্ত্রীর লাভলী এসে হঠাৎ করে আমার টিনের বেড়া ভাঙ্গা আরম্ভ করে, তাকে বারন করলে সে আমার মেয়ের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকেও আমার রাজমিস্ত্রিদের বিভিন্ন গালমন্দ করে।পরে আশেপাশের লোকজন এসেই উভয়পক্ষকে মানিয়ে দেয়।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে উভয় পক্ষ পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছেন লক্ষ্মীপুর মডেল থানায়। এসআই আবুল কালাম বলেন, আমরা উভয় পক্ষের অভিযোগ পেয়েছি আগামী শনিবার উভয়পক্ষকে থানায় আসার জন্য বলা হয়েছে।