লক্ষ্মীপুরে ক্রয় কৃত জমি দখল করতে গেলে প্রতিপক্ষের হামলা আহত ৫

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ লক্ষ্মীপুর চন্দ্রগঞ্জ থানা দিন ১১ নং হাজিরপাড়া ইউনিয়ন,২ নং ওয়ার্ড, নবী তাহেরপুর গ্রাম (রুনদির বাড়ি) সাইফুল ইসলাম দুলাল পিতা-মৃত আব্দুল হাসিম এর ক্রয় কৃত জমি দখলের ব্যাপারে  বলতে গেলে বড় ভাই নুরুল আফছারের ছেলে মনিরের ডেকে আনা কিশোর গ্যাংদের হাতে আহত হন মা সহ পরিবারের ৫জন

অভিযোগের আলোকে জানা যায়  সাইফুল ইসলাম দুলাল তার নিজ ফুফু রওশন আক্তার থেকে দুই শতাংশ জমি ক্রয় করেন। সেই জমি বুঝিয়ে দিতে গিয়ে সাইফুল ইসলাম দুলাল এর বড় ভাই মোঃ নুরুল আফসার এর কাছে জান ফুফু রওশন আক্তার।

ফুফু রওশন আক্তার ও সাইফুল ইসলাম দুলাল এর ছোট বোন রেনু বেগম, মোঃ নুরুল আফসার এর কাছে জমি চাওয়াকে কেন্দ্র করে নুরুল আফসার এর ছেলে মনির ও কিশোর গ্যাং বাবুসহ ১০ থেকে ১৫জন এসে রওশন আক্তার ও রেনু বেগমের উপর হঠাৎ হামলা চালায়।তাদের বাঁচাতে গিয়ে তার জামাতা নূর খান ও রওশন আক্তারের ছেলে আরমানকে এলোপাতাড়ি মারধর করে ওই কিশোর গ্যাংয়ের দল।

সাইফুল ইসলাম দুলাল ও মোঃ নুরুল আফসার আপন দুই ভাই।

সাইফুল ইসলাম দুলাল, মোহাম্মদ নুরুল আফসার এর কাছে দীর্ঘদিন থেকে তার ক্রয় কৃত জমি দখল ছেড়ে দেওয়ার জন্য বারবার বলেছে। মোঃ নুরুল আফসার জমি দখল না দেওয়ায় গত ১২/০৯/২০১৯ ইং তারিখ মোঃ নুরুল আফসার এর বিরুদ্ধে ১১ নং হাজিরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

এদিকে নুরুল আফসার ১১ নং হাজিরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আপন চাচাতো বোনের জামাই।  চাচাতো বোনকে সরকারি বরাদ্দকৃত একটি গর দিয়েছে যা পাওয়ার যোগ্য নয় বলে এলাকার মানুষ মন্তব্য করেন।

ওই সরকারি ঘর বানিয়েছিল সাইফুল ইসলাম দুলাল এর ক্রয় কৃত জমির উপর, সেই ঘর কে কেন্দ্র করে আজও চলছে ওই পরিবারের মধ্যে বাকবিতণ্ডা।

অত্র ওয়ার্ডের  ইউপি সদস্য মিঠু গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন সাইফুল ইসলাম দুলাল দীর্ঘদিন থেকে তার ক্রয় কৃত জমি দখল দেওয়ার জন্য বলেন। এই নিয়ে আমরা বৈঠক করেছি, এবং আগামী মাসে একটা বৈঠকের ডেট করেছি,এর মধ্যে হঠাৎ আফসারের ছেলে মনির কল দিয়ে তার  মামাতো ভাই সহকারে কয়েকজন কে ডেকে এ হামলা চালায় যা মেনে নেয়ার মতো নয়।

অন্যদিকে এলাকার হুমায়ুন কবির,আব্দুল করিম, ফিরোজ, আব্দুস সত্তার সহ অনেকের অভিযোগ মনির ও বাবু সহ বড় একটি কিশোর গ্যাং সমাজে সাধারণ মানুষের উপর অত্যাচার জুলুম করে আসছে।

সমাজকর্মীরা মনে করেন এখনি কিশোর গ্যাং কে না থামালে এরা সন্ত্রাস, মাদক আসক্ত সহ বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত হয়ে আমাদের এই সুশীল সমাজ নষ্ট করে দিবে। তাই গণমাধ্যম কর্মীদের মাধ্যমে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেন এলাকাবাসী।