লক্ষ্মীপুর তেওয়ারীগঞ্জে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে হামলা আহত ১

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ লক্ষ্মীপুর পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সদর উপজেলায় ১৯ নং তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ওমর হোসাইন ভুলুর বিগত দিনে তার পক্ষে নির্বাচন না করায় ধর্মপুর গ্রামের  ছাকায়েত উল্লাহ হাজী বাড়ির ,মৃত ছাকায়েত উল্লাহ ছেলে  মোঃ সোহাগ কে শারীরিকভাবে মারধোর করে।

অভিযোগে জানা যায় মোঃ সোহাগ গত বুধবার(১৫/০৭২০২০) দুপুর বেলায় ধর্মপুর ভুলু হাজি  ব্রিকফিল্ডের পশ্চিম পাশে রাস্তার দক্ষিণ পাশে খোলা জায়গায় বসিয়া  মোবাইল ফোনে কথা বলে।এই সময়  চেয়ারম্যান ওমর হোসাইন ভুলু মোটরসাইকেলে ঘটনাস্থলে আসিয়া অকথ্য ভাষায় গালমন্দ আরম্ভ করে। সোহাগ গালমন্দের কারণ জিজ্ঞাসা করা মাত্রই তাকে কিল ঘুষি লাথি মারিয়া শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্মকভাবে জখম করে। চৌকিদারের সহায়তায় হাত বেঁধে ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে যায়। সেখানে গাবের লাঠি দিয়ে  এলোপাতাড়ি পিটাইয়া শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্মক জখম করে।

এতে আমার শোর চিৎকার অন্যান্য সাক্ষীগণ জড়ো হইলে আমার হাতে থাকা স্যামসাং জে-৫ মোবাইলটি আছাড় মারে চেয়ারম্যান।  যার বর্তমান আনুমানিক মূল্য ১৫ হাজার টাকা। মারধরের কারনে সোহাগ অজ্ঞান হয়ে পড়ে। তখনই অন্য সাক্ষীগণ মুমূর্ষু অবস্থায় সোহাগকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করান। যাহার জরুরী রেজিঃ নং -৪১৯২/১৭ভর্তি  রেজি নং -১১৫০৭/৩৮তারিখ ১৫/০৭/২০২০ বর্তমানে সোহাগ লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ভুক্তভোগী পরিবার  এসমস্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি সি আর মামলা দায়ের করেন। যার নং -৩৬৭/২০