লক্ষ্মীপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হামলা নারীসহ আহত ৪

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ লক্ষ্মীপুর জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রবাসী রাকিবের পরিবারের উপরের উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে। এতে নারীসহ আহত হয়েছেন ৪জন। বুধবার রাতে লক্ষ্মীপুর পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড আহমদ আলী ছৈয়াল বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন, সেলিম (৫০), আব্বাস (৩০), সহিদা আক্তার (৪০), রেখা আক্তার।

জানা যায়, লক্ষ্মীপুর পৌর ৯নং ওয়ার্ডের লামচরী আহমদ আলী বাড়ির কুয়েত প্রবাসী রাকিবের সাথে পার্শ্ববর্তি হোসেন আহমদের সাথে দীর্ঘ দিন থেকে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিলো। এ নিয়ে বিভিন্ন সময় সামাজিকভাবে বৈঠকও হয়েছে। কিন্তু প্রতিপক্ষ একই বাড়ির মৃত আবদুর রশিদের ছেলে হোসেন আহমেদ সামাজিক সিদ্ধান্ত মেনে না নিয়ে বিভিন্ন ভাবে প্রবাসী রাকিবের পরিবারকে হয়রানি করে আসছে। বুধবার রাকিবের পরিবার তাদের জমিতে একটি ঘর নির্মান করতে গেলে হোসেন আহমেদ বাধা দেয় এবং একপর্যায়ে তার ছেলে শামীম বাহির থেকে ১০-১৫জন বহিরাগত এনে রাকিবের পরিবারের উপর হামলা চালায়। এসময় তারা রাকিবের নবনির্মিত ঘরটি ভাঙচুর এবং তার বসত ঘরে হামলা চালায়। বাধা দিলে রাকিবের পরিবার ও তার ভাইদের উপর হামলা করে। এতে রাকিবের ভাই সেলিম, আব্বাস, বোন সহিদা আক্তার ও ভাবী রেখা আক্তার আহত হয়। পরে তাদের উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা প্রদান করা হয়। এ বিষয়ে মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানা যায়।

প্রবাসী রাকিবের বড় ভাই সেলিম অভিযোগ করে বলেন, হোসেন সব সময় আমাদের উপর নির্যাতন করে আসছে। কোন বৈঠকই সে মানছে না। আমাদের ১০ডিসিম জমি সে জোর করে দখল করে আছে। এখন আমাদের বাউন্ডারির ভিতরে ঘর নির্মান করতে গেলে তারা আমাদের উপর বাহিরে থেকে লোকজন এনে হামলা চালায়। আমরা এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

অভিযোগ অস্বীকার করে হোসেন আহমদ বলেন, আমি কারও উপর হামলা চালাই নি। জমিটা আমার। তারা জমিটা আমার কাছে বিক্রি করেছে। কিন্তু এখন আবার তারা সেখানে ঘর নির্মান করছে।

এ বিষয়ে ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরেই ঘটনাটি ঘটেছে। এর আগেও কয়েকবার মারামারি হয়েছে। আমরা সামাজিকভাবে এটি মিমাংসার চেষ্টা করি। লক্ষ্মীপুর থানায় এ বিরোধের জেরে মামলাও রয়েছে। বিষয়টি সামাজিকভাবে সমাধানের প্রক্রিয়া শেষের দিকে। কিন্তু এখন আবার মারামারি বিষয়টি দুঃখজনক। আমরা চেষ্টা করছি উভয়পক্ষকে শান্ত করার জন্য।