সন্ত্রাসী হামলা মামলা থেকে বাঁচতে পাল্টা মামলা! লক্ষ্মীপুরে সরকারি কর্মচারীর বিরুদ্ধে প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ

জগন্নাথ দাস :
লক্ষ্মীপুরে মুজাহিদুল ইসলাম নামের এক সরকারি কর্মচারীর বিরুদ্ধে প্রভাব খাটিয়ে নিরিহ এক পরিবারকে হয়রাণি করার অভিযোগ উঠেছে। সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে মসজিদের ইমামকে হত্যার চেষ্টা মামলা থেকে বাঁচতে পাল্টা মামলা করে ওই পরিবারকে হয়রাণি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়।
সোমবার (০৬ মে) সকালে এ ঘটনার প্রতিবাদ ও প্রতিকার চেয়ে স্থানীয় একটি পত্রিকা কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী পরিবার। অভিযুক্ত মুজাহিদ লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের অফিস সহ-কারি হিসেবে কর্মরত।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গত ৫ জানুয়ারী জমি সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধের জের ধরে ফেনীতে চাকুরীরত মাদ্রাসা শিক্ষক ও মসজিদের ইমাম লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার কালিরচর গ্রামের ওসমান গনি ও তার বাবা মহি উদ্দিনের ওপর সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়। এসময় তাদের কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে চাকুরীরত মুজাহিদ, তার ভাই মাহমুদ ও বাবা শাহ আলম। এ ঘটনায় পরদিন তাদেরকে আসামী করে লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতে মামলা করেন ওসমান। পরে সদর থানা পুলিশকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন আদালত। তদন্ত শেষে গত ১৬ ফেব্রুয়ারী ঘটনার সত্যতা পেয়ে আদালতে প্রতিবেদন জমা দেয় পুলিশ। এদিকে ওই ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে সাড়ে ৩ মাস পর গত ২৯ এপ্রিল কল্পকাহিনী সাজিয়ে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পাল্টা মামলা করেন মুজাহিদের বাবা শাহ আলম।
এতে ওই মামলার বাদী ওসমান ও স্বাক্ষীদের আসামী করা হয়। মামলায় ১ নম্বর স্বাক্ষী রাখা হয় আগের মামলায় প্রধান অভিযুক্ত সরকারি কর্মচারী মুজাহিদকে।